কারমাইকেল কলেজের শতবর্ষ পুর্তি অনুষ্ঠান উপলক্ষে –

প্রধান অতিথির বাণী

উত্তর জনপদের শতবর্ষী ঐতিহ্যবাহী কারমাইকেল কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান-২০১৭ এর কলেজ প্রশাসন কর্তৃক আহ্বানে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বিংশ শতাব্দীর প্রথম পাদে বাংলাদেশে শিক্ষা বিস্তারে হাতেগোনা যে কয়টি প্রতিষ্ঠান জ্ঞানের আলোকবর্তিকা জ্বালিয়েছিল রংপুরের কারমাইকেল কলেজ তন্মধ্যে অন্যতম।

নিয়মিত পড়ালেখার পাশাপাশি ক্রীড়া ও ব্যায়াম অনুশীলন শিক্ষার্থীদের সুস্থ শরীর গঠন ও সুন্দর মানসিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। একবিংশ শতাব্দীর প্রযুক্তির উৎকর্ষের এ যুগে সমাজকে সঠিক পথে নিয়োজিত করানোর ক্ষেত্রে খেলাধুলাকে উপেক্ষা করবার কোন উপায় নেই। শরীর চর্চা ও খেলাধুলা আমাদের হৃদপি-, মাংসপেশি এবং হাড়কে শক্তিশালী ও আমাদের আত্মবিশ্বাসী করে তোলে। শিক্ষাক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ অবদান কারমাইকেল কলেজকে যেমন ঋদ্ধ করেছে তেমনি খেলাধুলার মাধ্যমে জাতীয় ক্ষেত্রে এগিয়ে নিয়ে যাবে অনেক দূর এ আমার দৃঢ় বিশ্বাস। মাওলানা কেরামত আলীর পূণ্যভূমি, বেগম রোকেয়ার জন্মভূমি, মধ্যযুগের অন্যতম সাধককবি হেয়াত মামুদের চারণভূমি, স্যার টমাস ডেভিড গিবসন ব্যারন কারমাইকেলের স্মৃতি বিজড়িত এই ঐতিহ্যবাহী সুযোগ্য কলেজ প্রশাসনের ডাকে সাড়া দিয়ে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

জ্ঞান অর্জন ও সুস্থ শরীর গঠন করে শাণিত মেধায়, সততা ও নিষ্ঠায়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে এই কলেজের শিক্ষার্থীগণ জাতির বৃহত্তর স্বার্থে কাঙ্ক্ষিত অবদান রাখতে সক্ষম হবে – এই প্রত্যাশা রইল।

(প্রফেসর ড. শরীফ এনামুল কবির)
সদস্য, বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন;
সাবেক উপাচার্য, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।